কিভাবে বুঝবেন কোন বোতল কতবার ব্যবহার করা যাবে??

বর্তমানে অনেকেই বোতলে পানি খেয়ে থাকেন। এখন আর গ্লাস বেশি একটা ব্যবহার করা হয় না। তবে বোতল কীভাবে ব্যবহার করতে হয় ও বোতল ব্যবহারের সতর্কতা অনেকেই জানেন না!সে সম্পর্কে জেনে নিন-

বুঝার উপায়গুলঃ

বোতলের নিচের দিকে তিন কোনা চিহ্ন থাকে। তাতে ১, ২, ৩, ৪ করে নম্বর দেয়া থাকে।আমরা অনেক সময় রাস্তা ঘাটে চলতি সময়ে বোতল কিনে থাকি। বোতল কেনার সময় লক্ষ্য রাখতে হবে নিচের ত্রিকোনের মধ্যে কত নম্বর রয়েছে। সরকারি নিয়ম অনুযায়ী বোতলে নম্বর দিতে হবে। তাই আমাদের সচেতন হতে হবে। সহজলভ্য বা সস্তার কোনো বোতল না কিনে একটু দামী বা ভালো বোতল কিনতে হবে। আর বোতল কেনার সময় অবশ্যই ভালো কোম্পানির কি না তা যাচাই করে দেখতে হবে।

১) বোতলের নিচে যদি ১ লেখা থাকে তবে বুঝতে হবে সেটা প্রেপথেলেপ পলিথিন দিয়ে তৈরি করা হয়েছে। যার জন্য এ বোতল একবারের বেশি দু’বার ব্যবহার করা যাবে না। আর যদি বোতলগুলো বেশি ব্যবহার করেন তবে তা স্বাস্থ্যের জন্য খুবই ক্ষতিকর।


২) যদি তিন কোনের মধ্যে দুই লেখা তবে সেটা সাধারণত খুব ঘন পলিথিন দিয়ে তৈরি করা হয়। আর এ প্লাস্টিক বা পলিথিন সাবান বা কিংবা শ্যাম্পু তৈরিতে ব্যবহার করা হয়। যার মধ্যে পানি রেখে খাওয়া ঠিক নয়। তবে এটা আস্তে আস্তে পেটে যাওয়া শুরু করবে। তাই বোতলের নিচে দুই লেখা থাকলেও সেটা কখনো কেনা যাবে না।

৩) যদি বোতলের নিচে তিন লেখা থাকে তবে সে ধরণের বোতলে পলিফেনাইল ক্লোরাইড বা পি ভি সি এর ব্যবহার থাকে। এর ফলে ওই ধরণের বোতলে পানি খেলে ক্যান্সারের মতো মারাত্মক রোগ হতে পারে।

৪) যদি কোনো বোতলের নিচে চার লেখা থাকে তবে সেটি স্বাস্থ্যকর। কারণ কোনো ভালো কোম্পানি বা সবচেয়ে উচ্চ মানের বোতলের গায়ে চার নম্বর ব্যবহার করা হয়ে থাকে। আর চার নম্বর লেখা বোতলগুলো একবারের বেশি একাধিক বার ব্যবহার করতে পারেন। শুধু বোতলে নয়, পানি খাওয়ার কন্টিনারগুলোতে এ নম্বর দেয়া থাকে।


৫) যদি ত্রিকোনের মধ্যে পাঁচ নম্বর থাকে তাহলে আপনি নিশ্চিন্তে সেটি ব্যবহার করতে পারেন। এটি আপনার স্বাস্থ্যের কোনো ক্ষতি করবে না আর অনেক নিরাপদ।

৬) যদি বোতলের নিচের ছয় লেখা থাকে তবে এর মধ্যে পলি কার্বোনেট বিজপেনাইটের ব্যবহার থাকে। যা ব্যবহার করলে ক্যান্সার হওয়ার সম্ভাবনা থাকে।


৭) যদি বোতলে সাত লেখা থাকে তবে সেটা মানব দেহের হরমোনজনিত বিভিন্ন রোগের কারণ হতে পারে। তাই এ ধরণের বোতল ব্যবহার থেকে বিরত থাকতে হবে।

adminsashthokotha

Back to top