ভাত খাওয়ার পরে যে কাজগুলো করবেন নাঃ


সারা বিশ্বের অধিকাংশ মানুষ নানাভাবে ভাত খেয়ে থাকে। বিশেষ করে এশিয়া মহাদেশের প্রায় ৯০% এর উপরে লোক প্রতিদিন একবার হলেও ভাত খায়। ভারত আর বাংলাদেশের কথা না হয় বাদই দিলাম। আর আমরা মাছে ভাতে বাংগালী বলে পরিচিত। তাই না? প্রবাদটি কিন্তু আসলেই সত্যি। এমন কোন বাংগালী খুজে পাবেন না যে সারাদিনে অন্তত একবার ভাত খাবে না। গরম হলে তো কথাই নেই। ঠান্ডা হলেও চলবে। এমনকি পান্তাভাত হলেও খাবে। তবে ভাতে যে উপকারিতা নেই তা কিন্তু নয়। অবশ্যই ভাত উপকারী একটি খাবারের নাম। কিন্তু কিছু বদ অভ্যাস রয়েছে, যেগুলো আমাদের সুস্থ রাখার পরিবর্তে শরীরের মারাত্মক ক্ষতি করছে। তাই ভাত খাওয়ার পরে সেইসব অবশ্যই পরিত্যাগ করা জরুরি। যেই অভ্যাসগুলো শরীরের নানাবিধ বিরূপ প্রভাব পেলে। ভূমিকা না বাড়িয়ে চলুন জেনে নেওয়া যাক সেই খারাপ অভ্যাসগুলো যা ভাত খাওয়ার পরে পরিহার করা উচিত,,,

১) ফল খাওয়া থেকে বিরত থাকুনঃ

ফল খাওয়া অবশ্যই শরীরের জন্য অত্যন্ত উপকারী। পুষ্টির চাহিদা মিটাতে ফল খেতে হবে। কিন্তু সেটা ভাত খাওয়ার পর পরই খাওয়া উচিত নয়। আপনার যদি এই অভ্যাসটা থেকে থাকে তো দ্রুতই পরিত্যাগ করা উচিত ৷ কেননা এতে অ্যাসিডিটি সহ আরও কিছু জটিল রোগ দানা বাধতে পারে। তাই ভাত খাওয়ার অন্তত এক ঘন্টা আগে বা পরে ফল খাওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা।

২) ধূমপান থেকে বিরত থাকুনঃ

ধূমপান এমনিতেই অনেক ক্ষতিকর। আবার অনেকেই দেখা যায় খাবার খাওয়ার পর পরই ধূমপান শুরু করে দেন। এইটা শরীরের জন্য মারাত্মক ক্ষতিকর। এবং খুবই খারাপ অভ্যাসের একটি। আমেরিকার একদল গবেষক দীর্ঘদিন এই বিষয়ে গবেষণার পরে জানিয়েছেন যে, অন্যসময় ধূমপান করলে যে ক্ষতি হয়, ভাত খাওয়ার পর পরই ধূমপান করলে তার ১০ গুণ বেশি ক্ষতি হয়ে থাকে।

৩) বিরত থাকুন গোসল থেকেওঃ


খাবার খাওয়ার পর পরই গোসল করা থেকে বিরত থাকতে পরামর্শ দিয়েছেন স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা। কারন খাবার খাওয়ার পর পরই গোসল করলে শরীরের রক্ত সঞ্জালনের মাত্রা বেড়ে যায়। যারফলে পাকস্থলীর চারপাশে রক্তের পরিমাণ বেড়ে যায়। যা পরিপাকতন্ত্রকে দুর্বল করে দেয়। ফলে খাবার হজমের স্বাভাবিক সময়কে ধীরগতির করে দেয়।

৪) কোমরের বাঁধন ঢিলা না করাঃ


অনেকেই দেখা যায় খাবার খাওয়ার পর পরই কোমরের বেল্ট বা কাপড়ের বাঁধন ঢিলা করে দেয়। এইটা পরবর্তীতে শরীরের জন্য মারাত্মক বিপদজনক হয়ে উঠে। কারন কোমরের বেল্ট বা কাপড় ঢিলা করলে খুব সহযেই পাকস্থলী থেকে রেক্টাম বা মলদ্বার পর্যন্ত খাদ্যনালীর নিম্নভাগ বেকে যেতে পারে বা পেচিয়ে যেতে পারে বা ব্লকও হয়ে যেতে পারে। এই সমস্যাটাকে ইন্টেসটাইনাল অবস্ট্রাকশন বলে।

৫) ব্যয়াম করা থেকে বিরত থাকুনঃ

আমরা সকলেই জানি ব্যয়াম মানব শরীরের জন্য অনেক উপকারী। কিন্তু সেটাই যদি আবার ভাত খাওয়ার পর পরই করা হয় তাহলে উপকারের চেয়ে ক্ষতি হয় বেশি।

৬) ঘুমানো উচিত নয় সাথে সাথেঃ

খাবার খাওয়ার পর পরই ঘুমাতে না যাওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন বিশেষজ্ঞ ডাক্তাররা। এটি খুবই খারাপ অভ্যাসের একটি৷ এতে হজম ক্রিয়ায় ব্যগাত ঘটে। সৃস্টি হয় অ্যাসিডিটি সমস্যা। তাছারা এর ফলে শরীরে মেদ জমে যায়৷

৭) চা পান করবেন নাঃ

অনেকেই দেখবেন খাবার খাওয়ার পর পরই চায়ের জন্য অস্থির হয়ে যায়। এইটা খুব খারাপ অভ্যাস। চায়ে প্রচুর পরিমাণে টেনিক এসিড থাকে। যা খাদ্যের প্রোটিন কে ১০০ গুন বাড়িয়ে দেয়। তাই যাদের এই অভ্যাস রয়েছে তারা দ্রুত এইটা পরিত্যাগ করিন। এতে খাবার হজম হতে স্বাভাবিকের চেয়ে সময় বেশি লাগে। তাই খাবার খাওয়ার পর পরই চা খাওয়া থেকে বিরত থাকতে পরামর্শ দিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা। কিছু সময় অপেক্ষা করে তারপরে চা খাওয়া উত্তম।

৮) হাঁটা-চলা না করাঃ


অনেকেই বলে থাকেন যে খাবার খাওয়ার পরে একটু হাটাহাটি করা ভাল। কিন্ত সেটা ভাত খাওয়ার পর পরই নয়। খাবার খাওয়ার পর হাটা উচিত। তবে সেটা অবশ্যই খাবার শেষ করেই তাৎক্ষণিকভাবে নয়। কেননা এতে করে আমাদের শরীরের ডাইজেস্টিভ সিস্টেম খাবার থেকে প্রয়োজনীয় পুষ্টি শোষণ করতে পারে না।
তাই খাবার খাওয়ার কিছু সময় পরে সামান্য হাটাহাটি করা ভাল

adminsashthokotha

Back to top