মুখের দাগ দুর করার ঘরোয়া টিপসগুলি জেনে নিনঃ


এক গবেষণায় দেখা গেছে, উঠতি বয়সের প্রায় ৯৬% নারী পুরুষের মুখে ব্রুণ উঠে থাকে পরবর্তীতে ব্রুণ সেরে গেলেও মুখে এক ধরনের কালো দাগ বসে যায় যা অত্যন্ত রিকক্তিকর। এতে করে অনেকেই লোকজনের সামনে যেতে ইতস্তত বোধ করে, কারো সামনে যেতে চায় না। আবার অনেকেই বলে থাকেন এই বয়সে ছেলে মেয়েরা অনৈতিক সম্পর্কে জড়িয়ে যায় বলে ব্রুন উঠে থাকে। এইটা ভিত্তিহীন ও সম্পূর্ন ভুল ধারনা। কোন সচেতন মানুষ এমন ধারনা পোষণ করতে পারেন না। প্রকৃতপক্ষে ব্রুণের আসল কারন হলো ১২ বছর থেকেই ছেলে মেয়েদের শরীরে এক ধরনের হরমোনের উৎপত্তি হয়। আর এইটাই ব্রুন হওয়ার আসল কারন।
এছাড়া মুখের দাগের আরেকটি প্রধান করন হলো, ত্বকে অতিরিক্ত তেল নিঃসরণ। যার ফলে ত্বকে ব্রুণ-ফুসকুড়ি।
তবে ব্রুণ সেরে গেলেও এক ধরনের কালো দাগ বসে যায়। এই কালো দাগ দুর করার পদ্ধতি নিয়ে আজকের আলোচনা। ভূমিকা না বাড়িয়ে চলুন জেনে নেই মুখের দাগ দুর করার ঘরোয়া টিপস গুলো কি কি।

১) ক্যালামাইন লোশনঃ
ক্যালামাইন লোশনে প্রচুর জিংক থাকে। যা অতিরিক্ত তেল শুষে নিতে সক্ষম। যারফলে ব্রুণের সমস্যা দুর করে। কয়েক ঘন্টা পর পর এই লোশন ব্যবহার করা যেতে পারে। প্রতিবার ব্যবহারের পূর্বে অবশ্যই মুখ ভাল করে ধৌত করে নিতে হবে ।

২) বেকিং সোডাঃ
১ চা চামচ বেকিং সোডা এব সামন্য পরিমান পানি মিশিয়ে নিয়ে পেস্ট তৈরি করে নিতে হবে। পানির পরিবর্তে অলিভ অয়েলও ব্যবহার করতে পারেন। বানানো পেস্ট ত্বকের দাগযুক্ত অংশে ভাল করে লাগিয়ে ১০-১২ মিনিট রেখে দিন। এরপর পরিস্কার পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন৷ এভাবে সপ্তাহে ২/৩ দিন ব্যবহার করলে, বেকিং সোডা ত্বকের পি এইচ ব্যালেন্স ঠিক রেখে ডেড সেল রিমুভ করে দিবে।

৩) ডিমের সাদা অংশঃ
ডিমের কুসুম ফেলে দিয়ে সাদা অংশটা ব্রাশ বা হাতে নিয়ে মুখে লাগিয়ে নিন। ১০-১২ মিনিট পর পরিস্কার পানি দিয়ে মুখ ভালভাবে ধৌত করে নিতে হবে। মুখ ধোয়ার পরে স্কিন টাইপ অনুযায়ী ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার করুন। এটা সপ্তাহে ২/৩ ব্যবহার করলে মুখের দাগ দুর করতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে।

৪) সিডার ভিনিগারঃ
এক ভাগ আপেল সিডার ভিনিগার, ৪ ভাগ জলের সাথে ভাল করে মিশিয়ে স্প্রে বোতলে রেখে দিন। এটি দিনে ২/৩ বার মুখে স্প্রে করুন। এটি ত্বকের পি এইচ ব্যালেন্স ঠিক রাখে এবং ব্লেমিস হালকা করে। যার ফলে ব্রুণের দাগের সমস্যা দুর হয়।

৫) অ্যালোভেরা জেলঃ
ত্বকের যে সমস্ত জায়গায় কালো দাগ বা ব্রুণের দাগের সমস্যা রয়েছে, সেখানে সমান্য পরিমানে অ্যালোভেরা জেল লাগিয়ে দিয়ে ২/৩ মিনিট ম্যাসেজ করে রেখে দিন। অতঃপর ১০-১৫ মিনিট পরে পরিস্কার পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। এটি ত্বকের দাগ দ্রুত সারাতে দারুণ কার্যকর। অয়েলি স্কিনের জন্য বিশেষভাবে উপকারী অ্যলোভেরা।

৬) মধুঃ
মধু সরাসরি দাগছোপের উপর লাগিয়ে রাখুন। ১৫/১৬ মিনিট পরে পরিস্কার পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। মধুতে প্রচুর পরিমানে হিউমেকট্যান্ট রয়েছে। যা ত্বককে নারিশমেন্ট দিতে সহায়তা করে। এবং এর স্কিন লাইটেনিং প্রপার্টি ত্বকের দাগ হালকা করতে বা দুর করতে খুবই কার্যকরী ভূমিকা পালন করে।

৭) আলুর রসঃ
প্রথমে আলু বেটে রস বের করে নিতে হবে। অতঃপর আলুর রস মুখে লাগিয়ে কয়েক মিনিট রেখে দিন। তারপর পরিস্কার পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। এভাবে দিনে ১/২ বার করুন আলুতে রয়েছে প্রচুর পরিমানে এনজাইম ও হালকা ব্লিচিং এজেন্ট যা ব্রুণের দাগের সমস্যা দুর করে।

৮) লেবুর রসঃ
লেবুর রস সারসরি দাগযুক্ত অংশে লাগিয়ে ১০-১২ মিনিট রেখে দিন। অতঃপর পরিস্কার পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। যদি আপনার ত্বক বেশি নরম বা সেনসেটিভ হয়, তাহলে সামান্য পানি মিশিয়ে নিন। সরাসরি দিবেন না।
ধন্যবাদ। শেয়ার করে সবাইকে জানানোর অনুরোধ করছি।

adminsashthokotha

Back to top