ঢাকা মেডিকেল -০১

প্রতিষ্টার ইতিহাসঃ

ঢাকা মেডিকেল শিক্ষা, চিকিৎসা সেবা এবং গবেষণার লক্ষ্য নিয়ে ১৯৪৬ সালে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল প্রতিষ্ঠিত হয়। বর্তমানে এটি দেশের সেরা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল হিসেবে সুপরিচিত।

মেডিকেল কলেজ প্রতিষ্ঠার জন্য গঠিত কমিটির প্রধান মেজর ডব্লিউ জে ভার্জিন প্রথম অধ্যক্ষ ছিলেন। শুরুতে, কেবলমাত্র চারটি বিভাগের ওষুধ, অস্ত্রোপচার, স্ত্রীরোগ এবং ওটোলারিঙ্গোল (শেষ) ছিল। যেহেতু কলেজটি প্রাথমিকভাবে এনাটমি বা ফিজিওলজি বিভাগ ছিল না, তাই ছাত্ররা প্রথমে মিটফোর্ড মেডিকেল বিদ্যালয়ে (বর্তমানে স্যার সলিমুল্লাহ মেডিকেল কলেজ) এই ক্লাসগুলিতে অংশ নিয়েছিল; তবে, এক মাস পরে, অ্যানাটমি পশুপতি বাসকান্দের অধ্যাপক এবং ফিজিওলজি বিভাগের অধ্যাপক হীরালাল সাহা কর্মীদের সাথে যোগ দিলেন এবং তাদের বিশেষত্বগুলি নং ওয়ার্ডে পড়ানো হয়েছিল। হাসপাতালের ২২ জন। প্রথমে কোনও বক্তৃতা হল বা বিচ্ছিন্ন গ্যালারী ছিল না। ১৯৫৫ সালে নতুন একাডেমিক ভবন নির্মাণের পরে এই চাহিদা পূরণ করা হয়েছিল এই কলেজটির কোনও ছাত্র আবাসন ছিল না। পুরুষ শিক্ষার্থীদের ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র হলগুলিতে থাকার অনুমতি দেওয়া হয়েছিল, তবে মহিলা শিক্ষার্থীরা সেই সুবিধাটি ব্যবহার করে নি। অস্থায়ী শেড দিয়ে কলেজ ও হাসপাতাল প্রাঙ্গণটি প্রসারিত করা হয়েছিল, যার কয়েকটি হাসপাতালের বহিরাগত পরিষেবাগুলির জন্য এবং কিছু শিক্ষার্থীদের আবাসনের জন্য নির্মিত হয়েছিল। আবাসন, কলেজ এবং হাসপাতালের জন্য নতুন ভবনগুলি পর্যায়ক্রমে নির্মিত হয়েছিল: ১৯৫২ সালে মেয়েদের জন্য একটি ছাত্রাবাস, ১৯৫৪-–৫৫ সালে পুরুষ শিক্ষার্থীদের জন্য একটি ছাত্রাবাস, ১৯৫৫ সালে একাডেমিক ভবনগুলির একটি নতুন কমপ্লেক্স এবং ১৯৭৪-–৭৫ সালে আন্তঃস্বাস্থ্য চিকিৎসকদের জন্য একটি ছাত্রাবাস। । ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল -২ (ঢামেক -২), ৫০০ শয্যা যুক্ত করে একটি নতুন একাডেমিক ও হাসপাতালের ভবনটি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ৩ অক্টোবর ২০১৩ এ উদ্বোধন করেছিলেন। সময়ের সাথে সাথে, ১০০ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতালটি বাংলাদেশের বৃহত্তম হয়ে উঠেছে। ২০১৩ সালে ৫০০ শয্যা যুক্ত করার পরে, ডিএমসিএইচে এখন ২৫ একর ক্যাম্পাসে ২৩০০ শয্যা রয়েছে।

চিকিৎসা ব্যবস্থা সুস্পন্ন করার জন্য এখানে ২৫ টি ডিপার্টমেন্ট,৪৮ ইউনিট এবং ৪৫ টি ওয়ার্ড রয়েছে। যাতে সার্বক্ষণিক কর্মরত রয়েছেন প্রায় ২৩৪ জন ডাক্তার এবং ৩৮০ জন শিক্ষানবিশ (ইন্টার্নী) চিকিৎসক।

ওয়ার্ড ও ইউনিট :

ওয়ার্ড ও ইউনিট এবং কেবিন মিলিয়ে সর্বমোট শয্যার সংখ্যা ১৭০০। সাধারন বেড ১৪৪১ টি, উন্নত বেড ১৪৩ টি, ডাবল কেবিন ৪৩ টি এবং সিঙ্গেল বেডের সংখ্যা ৩০ টি।

এখানে ইনডোর এবং আউটডোর দুইভাবেই রোগীদের সেবা দেওয়া হয়।
প্রতিদিন প্রায় ৩০০০ রোগীকে আউটডোরে সেবা দেওয়া হয়।

অবস্থানঃ

বকশী বাজার, শহীদ মিনারের সামনে। ১০০ রমনা, ঢাকা-১০০০।

যোগাযোগঃ
ফোনঃ ৮৬২৬৮১২-১৯, ৮৬২৬৮২৩, ৯৬৬৯৩৪০, ৯৫০৫০২৫-২৯, ৯৫০০১২১-৫।
ফ্যাক্স: ৮৬১৫৯১৯।
ই–মেইল: info@dmc.edu.bd , dmc_principal@yahoo.com
ওয়েবসাইট: WWW.dmc.edu.bd

হটলাইন মোবাইল: +৮৮-০১৯১১-২৬৯৪৪৯।

ফোন: +৮৮-০২-৮৬২৬৮১৩

খুলার সময়ঃ

শনিবার -সকাল ৮টা~দুপুর ০২.০০
রবি বার- সকাল ৮ টা – দুপুর ০২.০০
সোমবার -সকাল ৮টা~দুপুর ০২.০০
মজ্ঞলবার- সকাল ৮টা~দুপুর ০২.০০
বুধবার – সকাল ৮টা~দুপুর ০২.০০
বৃহঃ বার- সকাল ৮টা~দুপুর ০২.০০

Dhaka medical

adminsashthokotha

Back to top