টক্সিন সম্পর্কে বিস্তারিত জেনে নিন:

টক্সিন কি?

টক্সিন হল এক ধরনের বিষ, যা মুলত মানবদেহে খাবারের মাধ্যমে এবং পরিবেশ দূষণের মাধ্যমে প্রবেশ করে।
টক্সিন সহজেই শরীরের রোগ প্রতিরোধ ব্যবস্থাকে দূর্বল করে দেয়। ফলে আপনি খুব সাধারণ রোগ নিয়েও অনেক দিন অসুখে ভোগেন। ডাক্তারের ভাষ্য মতে, ‘‘টক্সিন মানব শরীরে একটি ঘুমন্ত হত্যাকারী”


টক্সিন কি ভাবে আমাদের শরীরে প্রবেশ করে?

সাধারণত টক্সিন ৩ ভাবে আমাদের শরীরে প্রবেশ করেঃ
১.শ্বাসপ্রশ্বাস ও ত্বক এর মাধ্যমে।
২.খাবারের মাধ্যমে।
৩. শরীরের ভিতর জনিত।

যে সকল পরিবেশগত কারনে টক্সিন উৎপাদিত হয় এবং শ্বাসপ্রশ্বাস ও ত্বক এর মাধ্যমে মানব দেহে প্রবেশ করেঃ

১. কারখানার দূষিত বাতাস
২. গাড়ির জ্বালানির ধোঁয়া
৩. বিভিন্ন দ্রাবক (রং, পরিষ্কারক)
৪. ভারি ধাতু
৫. রেডিয়েশান (বিকিরণ)
৬. কীটনাশক, উদ্ভিদনাশক
৭. ধুমপান
৮. ধুমপায়ীর হতে নির্গত ধোয়া।

খাওয়ার দিক থেকে যে ভাবে টক্সিন শরীরে প্রবেশ করেঃ

১. ফাষ্ট ফুড, ফ্রাইড ফুড
২. নিকোটিন
৩. এলকোহল
৪. ক্যাফেইন
৫. বিনোধনমূলক ড্রাগস্
৬. ভেজাল বা কৃত্রিম খাবার (রং, প্রিজারভেটিভ)
৭. অপরিশোধিত খাবার এবং চিনি

শরীরে আভ্যন্তরিন নিজে নিজে যে ভাবে টক্সিন উৎপ্নন হয়ঃ

১. ব্যাকটেরিয়া জনিত
২. খাদ্য বিষক্রিয়া
৩. অজীর্ণ খাদ্য

মানব দেহে টক্সিন এর প্রভাবঃ

০১. জয়েন্ট ও মাংস পেশীতে ব্যাথা।
০২. ঘামে প্রচণ্ড দুর্গন্ধ হওয়া।
০৩. বয়স বেশি না হয়েও বার্ধক্যজনিত রোগেপড়া।
০৪. দৃষ্টি শক্তি হ্রাস
০৫. স্মৃতি শক্তিহ্রাস
০৬. খাদ্য বিপাকে সমস্যা
০৭. ব্রেষ্ট ক্যান্সারের ঝুঁকি বাড়ায়
০৮. ব্যাক পেইন
০৯. বিরক্তিকর পেটের সমস্যা।
১০. অনিয়ন্ত্রিত স্বাস্থ্।
১১. বিভিন্ন চর্ম সমস্যা ও চর্মরোগ,ব্রন,মেসতা।
১২. হরমোনে অসামঞ্জস্যতা।
১৩. রক্তকে দূষিত করে।
১৪. সাভাবিক রক্ত চলাচল ব্যাহত করে।
★★
টক্সিন এর ক্ষতিকর প্রভাব থেকে বাচার উপায়ঃ

টক্সিন এর ক্ষতিকর প্রভাব থেকে বাচার একমাত্র উপায় হলো শরীর থেকে টক্সিন বের করে আনা। মানব শরীর থেকে টক্সিন বের করে আনার সবচেয়ে আধুনিক ও সহজ উপায় হলো ” ডিটক্স হিজামা থেরাপি ” হিজামা বা কাপিং এর মাধ্যমে শরীর থেকে টক্সিন বের করা।

adminsashthokotha

One thought on “টক্সিন সম্পর্কে বিস্তারিত জেনে নিন:

Comments are closed.

Back to top